জীবন দর্শন ভ্রমন স্বাস্থ্য ইতিহাস অনুপ্রেরণা চাকরি জানা-অজানা বিশেষ প্রতিবেদন সাক্ষাৎকার

পাংশায় মাদরাসা ছাত্র হত্যা মামলা তদন্তে ধীরগতি

0


আবুল কালাম আজাদ
জেলা প্রতিনিধি:

গত ২২ ডিসেম্বর সকাল সারে ১০টা। রাজবাড়ীর পাংশা শহরের হাজরাপাড়া এলাকার পুকুর এক মাদরাসা ছাত্রের লাশ ভাসছিলো। পুলিশ এ সংবাদ জানতে পেরে লাশটি উদ্ধার করে। লাশটি পিয়াস প্রামানিক(১৫) এর। সে হাজরাপাড়ার আরশেদ প্রামানিকের পুত্র। পুলিশ লাশটির পোস্টমর্টেম রিপোর্ট দেখে জানতে পারে তার মাথায় আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। পারিবাবিক লোকজন বিষয়টি খোঁজ নিয়ে জানতে পারে একটি প্রেমঘটিত কারনে এই হত্যাকান্ড।

মেয়েটির নাম সুমাইয়া। তার সাথে প্রেমের সম্পর্কেও কারনে মেয়েটির ভাই ইমরান, ইমরানের বন্ধু সাধন সহ অজ্ঞাত পরিচিত কতিপয় দুর্বত্ত এ হত্যাকান্ড ঘটায়।

এব্যাপারে ৪-১-২০১৮ ইং তারিখে নিহত মাদরাসা ছাত্র পিয়াস প্রামানিক এর পিতা আরশেদ প্রামানিক বাদী হয়ে মামলা দায়ের করে। মামলাটি তদন্তভার পায় পাংশা থানার এসআই জহুরুল ইসলাম। মামলার পর পুলিশ নিহতের পরিবারের সদস্যদের তথ্যের ভিত্তিতে ৩ আসামী গ্রেফতার করে। কিন্তু ঘটনার মুল নায়ক সাধনকে পুলিশ রহস্যজনক কারনে ধরছে না বলে অভিযোগ উঠেছে।

নিহতের পরিবারের অভিযোগ মামলাটির তদন্তের ব্যাপারেও পুলিশের কোন অগ্রগতি নেই। মামলার বাদী আরশেদ প্রামানিক জানান, ঘটনার সাথে জড়িতদের ব্যাপারে তদন্তকারী কর্মকর্তাকে গুরুত্বপূর্ন তথ্য দিলেও তিনি তা আমলে নেন না। আরশেদ প্রামানিক জানান, সাধন একাধিক বার পাংশা এলেও পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেনি। জানা গেছে,সে ভারতে পারি জমানোর চেষ্টা করছে। আরশেদ প্রামানিক মামলাটি সুষ্ঠু তদন্তে জন্য পুলিশ সুপারের হস্থক্ষেপ কামনা করেছেন।

ফেইসবুক মন্তব্য

Leave A Reply