জীবন দর্শন ভ্রমন স্বাস্থ্য ইতিহাস অনুপ্রেরণা চাকরি জানা-অজানা বিশেষ প্রতিবেদন সাক্ষাৎকার

ইসলামের শিক্ষাকে সমুন্নত রাখার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

0

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল আশকোনা হজ ক্যাম্প কার্যক্রমের উদ্বোধনের পর উপস্থিত হজযাত্রীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। ছবি : বাসস

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘ধর্মের শিক্ষা মানুষের কাছে যেন উচ্চ আসনে থাকে সেটা প্রতিষ্ঠা করাই আমাদের লক্ষ্য। কিন্তু কিছু লোক নিজস্ব স্বার্থে ইসলামের ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে আমাদের জন্য, সমগ্র মুুসলিম সম্প্রদায়ের জন্য সমস্যার সৃষ্টি করছে। ইসলাম সম্পর্কে বিভ্রান্তি ছড়ানো থেকে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।’

গতকাল বুধবার সকালে রাজধানীর বিমানবন্দর আশকোনা হজ ক্যাম্প এলাকায় হজ কার্যক্রম-২০১৮ কর্মসূচির উদ্বোধনের পর প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। পরে হজযাত্রীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন প্রধানমন্ত্রী। এবার বাংলাদেশ থেকে এক লাখ ২৬ হাজার ৭৯৮ জন হজযাত্রী পবিত্র হজব্রত পালনে মক্কা নগরীতে যাচ্ছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কিছু মানুষ যখন ইসলামের নাম নিয়ে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে, জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করে, তখন বিশ্বে মুসলমানদের হেয় হতে হয়। পবিত্র ইসলাম শান্তির ধর্ম। সকল ধর্মের মানুষ স্বাধীনভাবে নিজ নিজ ধর্ম পালন করবে। আমাদের নবী করিম (সা.) সে কথা বারবার বলে গেছেন।’ এ সময় জাতির পিতার ভাষণের উদ্ধৃতি দিয়ে ইনসাফের ইসলাম কায়েমের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘এই অনুষ্ঠানে আসতে পেরে আমি অত্যন্ত আনন্দিত এবং প্রতি বছর আমি অপেক্ষা করে থাকি যাঁরা হজে যাবেন তাঁদের সঙ্গে একটু সাক্ষাৎ হবে। আপনাদের কোনো অসুাবিধা থাকলে শুনে নেব এবং সেই সঙ্গে আপনাদের দোয়াও চাইব।’ তিনি এ সময় ’৭৫ ও ’১৫ আগস্টের বিয়োগান্তক অধ্যায়ের কথা উল্লেখ করে সেদিনের শাহাদত্বরণকারীদের জন্য হজযাত্রীদের কাছে দোয়া কামনা করেন। তিনি বলেন, ‘আমার চাওয়া পাওয়ার কিছু নেই। শুধু একটা লক্ষ্য নিয়েই কাজ করছি। আমার বাবা এই দেশ স্বাধীন করে গেছেন। কাজেই এই দেশের মানুষ দারিদ্র্য থেকে মুক্তি পাবে, সুন্দর জীবন পাবে, ভালোভাবে বাঁচার অধিকার পাবে। সেটাই আমার লক্ষ্য।’

এ দেশে আওয়ামী লীগ সব সময় ইসলামের খেদমতে নিবেদিত উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী এ দেশে ইসলামের প্রসারে গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল, ধর্ম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বি এইচ হারুন, ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, রাজকীয় সৌদি দূতাবাসের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স আমির বিন ওমর সালেহ বক্তৃতা করেন।

সূত্র: বাসস।

ফেইসবুক মন্তব্য

Leave A Reply